করোনা চিকিৎসায় খুলনায় ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপনের দাবি নাগরিক সমাজের

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো প্রতিবেদক : করোনা সংক্রমণে হটস্পট খুলনায় করোনা চিকিৎসায় শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন খুলনা নাগরিক সমাজের নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনা সংক্রমণের হার এবং প্রয়োজনের তুলনায় খুলনায় করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল বা শয্যা সংখ্যা খুবই অপ্রতুল। এমতাবস্থায় ভৌত অবকাঠামোগত সংকট বিবেচনায় খুলনায় অতিদ্রুত প্রয়োজনীয় সংখ্যক শয্যাবিশিষ্ট ফিল্ড হাসাপাতাল স্থাপন সময়ের দাবি। অন্যথায় বিদ্যমান সংকট মোকাবেলা করা অসম্ভব হয়ে পড়বে। এমনিতেই শয্যা সংকট, জনবলের অভাব, অব্যবস্থাপনা, অপরিকল্পিত সিদ্ধান্ত প্রভৃতি কারণে করোনা পরিস্থিতিতে মানবিক বিপর্যয়ের সৃষ্টি হয়েছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার ঢাকায় ৫টি ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলেও করোনা সংক্রমণে সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে থাকা খুলনায় ফিল্ড হাসাপাতাল স্থাপনের সিদ্ধান্ত না নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যে সময়ে সর্বোচ্চ সংক্রমণ এবং মৃত্যু খুলনাতে ঠিক সে সময়ে খুলনাকে বাদ দিয়ে এ ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ অমানবিক, বৈষম্যমূলক, অদূরদর্শি, দায়িত্ব জ্ঞানহীন। যা কোনো ভাবেই কাম্য নয়। সীমান্তবর্তী জেলা এবং ২টি স্থল বন্দর ও ১টি সমুদ্র বন্দর দ্বারা পরিবেষ্টিত খুলনায় পার্শ্ববর্তী পিরোজপুর, বাগেরহাট, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, নড়াইল, যশোর, সাতক্ষীরাসহ আশপাশের জেলার করোনা রোগীদের চিকিৎসা খুলনাতেই হয়। অথচ বিদ্যমান ভঙ্গুর চিকিৎসা ব্যবস্থার সমাধান করার কোনো উদ্যোগ তো নেই-ই। অন্যদিকে খুলনা থেকে বার বার দাবি উত্থাপিত হওয়া সত্বেও এহেন সিদ্ধান্ত খুলনাবাসীকে হতাশ করেছে। নেতৃবৃন্দ যাচাই-বাছাইপূর্বক খুলনায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক শয্যাবিশিষ্ট করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল অনতিবিলম্বে স্থাপনের আহবান জানান। বিবৃতিদাতারা হলেন, সংগঠনের পক্ষে আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অ্যাড. আ ফ ম মহসীন ও সংগঠনের সদস্য সচিব অ্যাডঃ মোঃ বাবুল হাওলাদার।

(ঊষার আলো-আরএম)