চ্যাটিংয়ে বাধা দেয়ায় ঘুষি মেরে স্বামীর দাঁত ভাঙলেন স্ত্রী!

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : অনলাইনে ডুবে থাকা এখন এক আসক্তিতে পৌঁছেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রয়োজন বা অপ্রয়োজনে মানুষের ব্যস্ততা। যা কিনা পারিবারিক জীবনেও প্রভাব ফেলছে। এ নিয়ে প্রায়ই বিভিন্ন অঘটন সামনে আসছে।

যেমন সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে বাধা দেয়ায় ঘুষি মেরে স্বামীর দাঁত ভেঙে দেন স্ত্রী। ভারতের শিমলায় এই ঘটনায় মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী স্বামী। স্ত্রীর উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি।

জানা যায়, এ ঘটনা কিছু দিন আগেই ঘটে। ঘটনার পরদিন শিমলার থিওগ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। সে ব্যক্তি পুলিশকে জানান, তার স্ত্রী মোবাইলে আসক্ত। ক্রমাগত হোয়াটসঅ্যাপে চ্যাট করতেই থাকেন। ঘটনার দিন স্ত্রী যখন হোয়াটসঅ্যাপে মগ্ন ছিলেন, তখন তিনি বাধা দিতে যান। এতেই স্ত্রী ক্ষিপ্ত হয় ও ঘুষি মেরে তার দাঁত ভেঙে দেন।

এছাড়া তিনি অভিযোগ করেন, স্বামীকে লাঠি দিয়েও মারধর করেছে সেই স্ত্রী। তাতে হাসপাতালে নিতে হয় ওই ব্যক্তিকে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে সোজা থানায় হাজির হন তিনি।
আর অভিযোগ দায়ের করেন স্ত্রীর বিরুদ্ধে। পরে স্বামীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা নথিভুক্ত করে থিয়োগ থানার পুলিশ।
শিমলার পুলিশ সুপার মণিকা বলেন, স্বামীর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। কেন সেই নারী এমন কাজ করলেন তা খতিয়ে দেখা হবে। তাকে খুব শীঘ্রই জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

(ঊষার আলো -এফএসপি)