UsharAlo logo
বৃহস্পতিবার, ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দৌলতপুর থানা বিএনপির সদস্য সচিব শেখ ইমাম হোসেনকে গ্রেফতার এবং রাতভর পুলিশি নির্যাতনের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

ঊষার আলো রিপোর্ট
ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৪ ৫:২৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

গায়েবী মামলায় দৌলতপুর থানা বিএনপির সদস্য সচিব শেখ ইমাম হোসেনকে অবৈধভাবে গ্রেফতার এবং রাতভর পুলিশি নির্যাতনের প্রতিবাদে
আজ দুপুরে বিএনপি প্রধান কার্যালয় খুলনায় সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম বলেন, “পাবলা দক্ষিনপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্বাচন কেন্দ্রে অগ্নিসংযোগের কোন ঘটনাই ঘটেনি। ৭ জানুয়ারি বা ৮ জানুয়ারি কোন গণমাধ্যমে ওই ভোট কেন্দ্রে অগ্নিসংযোগের ঘটনার কোন সংবাদ প্রকাশিত হয়নি। শুধুমাত্র বিএনপি নেতাকর্মীদের হয়রানী করার জন্য এই ধরনের মিথ্যা অগ্নিসংযোগের নাটক মঞ্চস্থ করা হয়েছে। দৌলতপুর থানা বিএনপির সদস্য সচিব ইমাম হোসেনকে গ্রেফতারের আগে একই মামলায় ৩জনকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেওয়া হয় এবং স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা করা হয়। আমরা অবাধ বিষ্ময় হয়ে লক্ষ্য করলাম, দৌলতপুর থানা বিএনপির সংগ্রামী সদস্য সচিব সাবেক ছাত্রনেতা ইমাম হোসেন মহামান্য হাইকোর্ট থেকে আট সপ্তাহের আগাম জামিন নিয়ে প্রায় ৩ মাস পর বাড়ি ফিরলে তাকে তার বাড়ির সামনে থেকে দৌলতপুর থানার পুলিশ গ্রেফতার কওে কথিত নাশকতা মামলায় গ্রেফতার দেখায় এবং সারারাত তার ওপর পাশবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে। জোরপুর্বক স্বীকারোক্তিমুলক জবাববন্দি আদায় করা হয়।

পুলিশের নির্যাতনে শেখ ইমাম হোসেন মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়লে দৌলতপুর থানার পুলিশ তাকে হাসাপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) তাকে সিএমএম আদালতে হাজির করার আগে ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করে। আদালত চত্ত্বরে এক ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে। শেখ ইমাম হোসেন বিএনপির একজন পরীক্ষিত নেতা। দীর্ঘ ৩০ বছরের অধিক সময়ে সে রাজনীতির সাথে জড়িত। তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে শুধুমাত্র বিএনপির রাজনীতি করা ছাড়া অন্য কোন অভিযোগ নেই।”

তিনি আরো বলেন, ” আপনারা জানেন আমরা দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করেছিলাম। নির্বাচন প্রতিহত করার ঘোষনা ছিলো না বিএনপির। আমাদের ডাকে সাড়া দিয়ে দেশে শান্তিপ্রিয় গনতন্ত্রকামী ৯৫ শতাংশ মানুষ ডামী ভোট বর্জন করেছে। আমরা খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপি এহেন ন্যাক্কারজন ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। একই সাথে শেখ ইমাম হোসেন এর ওপর পাশবিক নির্যাতনের সাথে জড়িত পুলিশ সদস্যদের  বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানাচ্ছি।  অতিউৎসাহী হয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা থেকে বিরত থাকার আহবান জানাচ্ছি।”

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপি আহবায়ক এ্যাড. শফিকুল আলম মনা, স. ম আ রহমান, সাইফুর রহমান মিন্টু, বেগম রেহেনা ঈসা, কাজী মাহমুদ আলী, বদরুল আনাম খান, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, আশরাফুল আলম খান নান্নু, একরামুল হক হেলাল, শেখ সাদী, হাসানুর রশিদ চৌধুরী মিরাজ, এনামুল হক সজল, শেখ জাহিদুল ইসলাম, মো. মুরশিদ কামাল, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, হাবিবুর রহমান বিশ্বাস, মুর্শিদুর রহমান লিটন, নাসির খান, সরদার আব্দুল মালেক, মিজানুর রহমান মিলটন, শফিকুল ইসলাম শফি, সামছুল বারিক পান্না, এড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, এ্যাড. কানিজ ফাতেমা আমিন, আজাদ আমিন, শরিফুল ইসলাম টিপু, রকিবুল ইসলাম মতি প্রমূখ।