বন্ধু সোস্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সাথে মিডিয়া ফোরামের ভার্চুয়্যাল মিটিং

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : বন্ধু সোস্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সাথে খুলনা বিভাগীয় বন্ধু মিডিয়া ফোরামের ভার্চুয়্যাল মিটিং রোববার (২৫ এপ্রিল) বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় অংশ নেন বন্ধু সোস্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির ম্যানেজার (পলিসি এডভোকেসী) মোঃ মশিউর রহমান, খুলনা বিভাগীয় বন্ধু মিডিয়া ফোরামের আহবায়ক দৈনিক প্রবাহের স্টাফ রিপোর্টার খলিলুর রহমান সুমন, যুগ্ম আহবায়ক ইত্তেফাকের খুলনা প্রতিনিধি এনামুল হক, সদস্য একুশে টিভির খুলনা প্রতিনিধি মহেন্দ্রনাথ সেন, ঢাকা ট্রিবিউনের খুলনা প্রতিনিধি হেদায়েৎ হোসেন মোল্লা, কালের কণ্ঠের কৌশিক দে বাপী, ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির খুলনা প্রতিনিধি মোঃ শামীমুজ্জামান, দৈনিক পূর্বাঞ্চলের স্টাফ রিপোর্টার এইচ এম আলাউদ্দীন, বাংলানিউজ২৪.কম-এর খুলনা প্রতিনিধি মাহবুবুর রহমান মুন্না, খুলনা গেজেট ২৪.কম-এর স্টাফ রিপোর্টার নিপা মোনালিসা, মধুমতি নিউজ২৪.কম-এর প্রতিনিধি সাইফুল ইসলাম, নক্ষত্র মানব কল্যাণ সোসাইটির নেত্রী পাখি দত্ত, সজল আহমেদ, সেজান আহমেদ প্রমূখ।

সভায় হিজড়াকে আর হিজড়া না বলে তৃতীয়লিঙ্গের সদস্য বলার অঙ্গিকার করা হয়। সভায় প্রতিবেদন পেশ করেন সংগঠনের আহবায়ক খলিলুর রহমান সুমন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, সমাজে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী হিজড়া সম্প্রদায়কে সমাজের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনা ও সম্পদে পরিণত করার প্রত্যয় নিয়ে খুলনার গণমাধ্যম কর্মী নিয়ে ২০১৯ সালে গঠন করা হয় বন্ধু বিভাগীয় মিডিয়া ফোরাম। তারা বিভিন্ন সময় এ পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী হিজড়াদের জীবন মান উন্নয়নে সমাজে ইতিবাচক মনোভাবের জায়গা থেকে বিভিন্ন প্রতিবেদন করেন। এ ফোরামে কাজ করার আগে বন্ধুর পক্ষ থেকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। যা সংবাদ কর্মী হিসেবে এ প্রশিক্ষণ আগে কখনও দেয়া হয়নি। বন্ধুর সাথে কাজ করতে গিয়ে হিজড়াদের সম্পর্কে আগে যে নেতিবাচক ধারণা ছিল তা অনেকটা পাল্টিয়েছে। ফোরামের পক্ষ থেকে এ সামাজের সদস্যদের কর্মসংস্থানের জন্যও চেষ্টা করা হয় । এছাড়া ২০১৯ সালের ২৭ আগস্ট হিজড়া সদস্যদের সাথে বিভাগীয় মিডিয়া ফোরামের মত বিনিময় সভা হয়। ওই সভায় গণমাধ্যম কর্মীদের ব্যাপারে হিজড়াদের মধ্যে সেতুবন্ধ তৈরীর কলাকৌশল শেখানো হয়। বন্ধু দেয়া খাদ্য সহায়তা সিভিও-দের সাথে নিয়ে বিতরণ করা হয়। এছাড়া ফোরামের সহায়তায় হিজড়া সম্প্রদায়ের সদস্য বা পরিবারকে করোনাকালিন খাদ্য সহায়তার ব্যবস্থা করা হয়। এ ফোরামের একজন সদস্য সাইফুল ইসলাম সম্প্রতি বন্ধুর মিডিয়া ফেলোশিপ পেয়েছেন। এ জন্য বন্ধুকে ধন্যবাদ জানানো হয়। এ সংগঠনটি বেচে থাকলে সারা দেশের ন্যায় খুলনায়ও এ অবহেলিত জনগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়নে সহায়তা হবে। হিজড়াদের সমাজের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনতে গণমাধ্যম কর্মীরা অগ্রনী ভূমিকা পালন করবে। বন্ধুর মত এত বড় প্লাটফরম না থাকলে হয়তো বা হিজড়াদের ব্যাপারে অন্ধকারেই থাকত গণমাধ্যম কর্মীরা। এ জন্য বন্ধুর স্বপ্ন অবহেলিত হিজড়াদের সমাজের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনা তা গণমাধ্যম কর্মীরা বাস্তবায়ন করতে চায়। সভায় বলা হয়, করোনাকালিন সময়ে তৃতীয় লিঙ্গের সদস্যরা নানাভাবে কস্ট ভোগ করেন। বিশেষ করে টিকা দেয়ার ক্ষেত্রে নানা সমস্যায় তারা পড়ছেন।

(ঊষার আলো-এমএনএস)