বিয়ের ১৬দিনের মাথায় সেফটি ট্যাংকে যুবকের বস্তাবন্দী মৃতদেহ 

সর্বশেষ আপডেটঃ
সেফটি ট্যাংকে যুবকের বস্তাবন্দী মৃতদেহ  সংগৃহিত

ঊষার আলো প্রতিবেদক : বটিয়াঘাটায় পুলিশ সেফটি ট্যাংক থেকে গোলাম রসুল (২০) নামে এক যুবকের বস্তাবন্দী মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। নিহত রসুল বটিয়াঘাটা উপজেলার বাঁশবাড়িয়া একতা মোড় এলাকার গোলাভিটা এলাকার মো. মুজিবুর রহমানের পুত্র ।
বুধবার (০১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তার বাড়ি সংলগ্ন একটি লেট্রিনের সেফটি ট্যাংক থেকে তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ ও নিহতের পারিবারের সদস্যরা জানান, মৃত গোলাম রসুল ১৬ দিন পূর্বে হোগলাডাঙ্গা এলাকার আবুল মান্নান শেখের কন্যা তিন্নী বেগম (১৮) কে বিয়ে করেন। গত ২৫ আগস্ট মো. গোলাম রসুল বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় তাঁর পরিবারের সদস্যরা বটিয়াঘাটা থানায় সাধারণ ডায়ারি করে। পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিকে বুধবার বেলা সোয়া দুইটার দিকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে। পরে সেটি খুলনা মেডিক্যাল হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, কি কারণে কারা তাকে হত্যা করেছে ধারণা করতে পারছেন না। তবে রসুলের বিরুদ্ধেও এলাকায় বিভিন্ন ঘটনার সাথে জড়িতের অভিযোগ ছিল। নিখোঁজের দিন তার সাথে কয়েকজনের কথা কাটাকাটির ঘটনাও ঘটে। ফলে এ নিয়ে রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করেছে। কিন্তু একাধিক ব্যক্তি জড়িত থাকায় নাম প্রকাশ করছে না।

তারা বলেন, পুলিশ কৌশলী ভূমিকা নিয়ে জড়িত সকলকে গ্রেফতার করতে চায়।

বটিয়াঘাটা থানার ওসি মোহম্মদ শাহ জালাল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রসুল হত্যায় জড়িত সন্দেহে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে নাম বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হবে।