ব্যস্ত সড়কের দু’পাশে চলছে ইট-বালুর রমরমা ব্যবসা

সর্বশেষ আপডেটঃ

শেখ বদর উদ্দিন : নগরীর খানজাহান আলী থানা এলাকার মহাসড়ক ও বিভিন্ন বাইপাস সড়কের দু’পাশ অবৈধ দখল করে চলছে জমজমাট ইট-বালুর ব্যবসা। ব্যস্ত সড়কের পাশে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে প্রশাসনের চোখের সামনে চলছে রমরমা এই ব্যবসা। আর এই ব্যবসার খেসারত দিচ্ছে স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী, পথচারী, যাত্রী ও যানবাহন চালকরা। যার ফলে নষ্ট হচ্ছে সড়ক ও সাধারণ মানুষের চলাচল ও যানবাহনের যাত্রীদের প্রতিনিয়ত ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। ব্যস্ত সড়কের পাশের ফুটপাতগুলো অবৈধ দখল করে ইট, বালুর ব্যবসা করার অনুমতি না থাকলেও নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনের চোখের সামনে প্রকাশ্যে চলছে এই ব্যবসা এবং দিন-দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে ব্যবসার পরিধি। ফলে সড়কের দু’পাশের ফুটপাত বন্ধ হয়ে জনসাধারণের চলাচলের দুর্ভোগ পোহাচ্ছে হচ্ছে প্রতিনিয়তই, এতে করে ছোট-বড় দুর্ঘটনায় পড়ছে বিভিন্ন যানবাহন এবং পথচারী। সরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, খানজাহান আলী থানা এলাকার গ্যারিশন থেকে শুরু করে পথের বাজার পর্যন্ত মহাসড়কের দু’পাশ অবৈধ দখল করে গড়ে উঠেছে ছোট-বড় প্রায় ২০/২৫টি ইট বালুর ব্যবসা। তাছাড়া থানা এলাকার কেডিএ আবাসিক এলাকার বিআরটিসি রোড, কুয়েট রোড, ফুলবাড়ীগেট টিভি হাসপাতাল রোডসহ বিভিন্ন স্থানে রাস্তার দু’পাশ অবৈধদখল করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে ব্যবসায়ীরা। বিশেষ করে সড়কের পাশে বালুর স্তুপ করে রাখায় সর্বক্ষণই বাতাসে উড়ে রাস্তার উপর ছড়িয়ে ছিটিয়ে জনগণের চলাচলের বিঘ্ন ঘটছে। তাছাড়া সড়কের পাশে বালুর ব্যবসা করায় স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এতে করে সড়ক দিয়ে চলাচলকারী যাত্রী ও যানবাহনের চালকদের চোখে মুখে ঢুকে পড়ে ধুলা-বালু আর এতেই প্রতিদিনই ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। এমনকি দুর্ঘটনায় প্রাণও হারাচ্ছে সাধারণ মানুষ। সিএনজি চালক, মালেক কবির বলেন, এই সড়কে ছোট বড় যানবাহন চলাচলে চরম ভোগান্তির স্বীকার হতে হয়। বালুবাহী ট্রাকের ওপর পর্দা না থাকায় বালু উড়ে চালক ও যাত্রীদের চোঁখে মুখে যাচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে কখনো পদক্ষেপ গ্রহন করতে দেখা যায়নি। এ ব্যপারে ফুলতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন এর নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, জনসাধারণের চলাচলের পথে এ ধরনের ব্যবসা করে সাধারণ মানুষের ক্ষতি হবে তা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। সরেজমিনে যেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)