সাইবেরিয়ার গুহায় সংরক্ষিত ২৮ হাজার বছর আগের সিংহ শাবক!

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : পূর্ব সাইবেরিয়ার গুহার ভিতরে সংরক্ষিত দুই মাসের একটি সিংহ শাবক পাওয়া যায়। শাবক টি ২৮ হাজার বছর আগে মারা গিয়েছিল। তারপর স্টকহোম, সুইডেনের সেন্টার ফর প্যালিওজেনেটিক্সের গবেষকেরা শাবকটিকে অক্ষত অবস্থায় পেয়ে গবেষণাগারে আনে।

অনুমান করা যায় যে, শাবকটি এক শিকারীর দ্বারা নিহত হয়েছিল। তবে তারপরও শাবকটির খুলি, পাঁজর বা টিস্যুর কোনও ক্ষতি হয়নি। এরপরই বিশেষজ্ঞরা তার নরম কোষ ও অঙ্গগুলি দিয়ে মমি তৈরি করেন।

বিশেষজ্ঞরা এই সিংহ শাবকটির নাম দেন স্পার্টা। আর এই স্পার্টা বিশ্বের সেরা সংরক্ষিত বরফযুগের প্রাণীদের মধ্যে একটি। তার পশম হালকা নষ্ট হলেও দাঁত ও চামড়া অক্ষত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল।

কিন্তু প্রাথমিকভাবে জানা যায়, যখন স্পার্টা মারা গিয়েছিল তখন গুহায় আরও একটি সিংহের চিহ্ন পাওয়া যায়। পরবর্তীতে যার নাম দেওয়া হয় বরিস। গবেষণার মাধ্যমে জানা গেছে, তারা মূলত ভাই-বোন ছিল।

সেন্টার ফর প্যালিওজেনেটিক্সের বিবর্তনবাদী জেনেটিক্সের অধ্যাপক লাভ ড্যালেন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, এই দুই সিংহকে সংরক্ষণের ফলে খুব দ্রুত কবর দেওয়া হয়েছিল। কাজে হয়তো তারা কাঁদার মধ্যে বা পারমাফ্রস্টের একটি ফাটলে পড়েছিল। এখন পর্যন্ত বরফযুগের যেসব প্রাণীর মৃতদেহের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে, তার মধ্যে স্পার্টাকে সবচেয়ে অক্ষত অবস্থায় পাওয়া গেছে। কিন্তু বরিসের দেহাবশেষের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে।

সম্প্রতি রাশিয়ার ফার ইস্ট অঞ্চলে একটি নদীর পারে দুইটি সিংহশাবকের মরদেহের সন্ধান পান বিলুপ্ত প্রাণী ম্যামথের দেহাবশেষ খোঁজা ব্যক্তিরা। সাইবেরিয়ান প্রজাতির এ সিংহের বাস ছিল পাহাড়ের গুহায়।

নতুন একটি গবেষণায় বলা হয়েছে, এ দুই শাবকের বয়সের পার্থক্য প্রায় ১৫ হাজার বছর। বয়স নির্ধারণের বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি রেডিও কার্বন ডেটিংয়ের তথ্যমতে বরিস এখন থেকে ৪৩ হাজার ৪৪৮ বছর আগে জন্মেছিল।

(ঊষার আলো-এফএসপি)