UsharAlo logo
সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সাগর উত্তাল, কুয়াকাটা সৈকতে আছড়ে পড়ছে বড় বড় ঢেউ

usharalodesk
মে ১৪, ২০২৩ ৯:৪৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঊষার আলো রিপোর্ট : ঘুর্নিঝড় মোখার প্রভাব পড়তে শুরু করেছে পটুয়াখালীতে। রোববার (১৪ মে) সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ও দমকা হাওয়া বইছে। সাগর উত্তাল থাকায় কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে আছড়ে পড়ছে বড় ঢেউ।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের ১৭ নং বিজ্ঞপ্তিতে পায়রা সমুদ্র বন্দর ও পটুয়াখালী জেলাকে ৮ নং মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। ঘুর্ণিঝড়ের প্রভাবে বিভিন্ন নদ নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মানুষদের নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্রে চলে যাওয়ার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। চরাঞ্চলের বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মানুষদের নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে যাচ্ছে সিপিপি সদস্য ও উপজেলা প্রশাসন। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে শুকনো খাবার বিতরণ চলছে।

কুয়াকাটা পৌরসভার মেয়র আনোয়ার হাওলাদার বলেন, যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য আমরা প্রস্তুত রয়েছি। মোখার পূর্বাভাস পাওয়ার পর থেকেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এখানকার মানুষদের নিরপদে স্থানে যাওয়ার জন্য মাইকিং করা হয়েছে। আজ সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে এবং বাতাস বইছে।

এ সময় গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মহিউদ্দিন আল হেলাল বলেন, চরাঞ্চল ও বেরিবাঁধ এলাকার মানুষদের যারা আশ্রয়কেন্দ্রে এসেছেন তাদের শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মোখার ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনার জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা রয়েছে।

পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মহিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মানুষদের জন্য কাজ করছি। সমস্ত সাইক্লোন শেল্টার পাকা বিল্ডিং ও হোটেলগুলোকে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া জেলা যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ ও শ্রমিক লীগসহ সকল নেতা-কর্মী আমরা প্রস্তুত রয়েছি। যেকোনো পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে থাকার জন্য।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবা সুখী বলেন, পটুয়াখালী উপকূলীয় এলাকায় সকাল থেকেই বৃষ্টি থাকবে। নদীর পানি বৃদ্ধি পাবে এবং এর সঙ্গে বাতাস ও থাকবে। তবে সন্ধ্যার মধ্যে এই উপকূল থেকে ঘূর্ণিঝড় চলে যাবে।

ঊষার আলো-এসএ