সিপিবি’র মিছিল সমাবেশে বক্তারা

স্বল্প আয়ের মানুষের জীবন রক্ষায় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের বিকল্প নেই

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, ঘুষ-দুর্নীতি-লুটপাট বন্ধ, ভোটাধিকার ও গণতন্ত্র নিশ্চিত কর রাষ্ট্রীয় পাটকল রাষ্ট্রীয়ভাবে চালু কর’ এ দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে খুলনায় লাল পতাকার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ  মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠিত হয়। দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিলটি বের হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহীদ মহারাজ চত্বরে এসে শেষ হয়।

মিছিলোত্তর সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জেলা সভাপতি ডাঃ মনোজ দাশ।জেলা সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. এম এম রুহুল আমিনের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ও উপস্থিত ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদাৎ, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মোঃ বাবুল হাওলাদার, সিপিবি নেতা সুতপা বেদজ্ঞ, অ্যাড. চিত্তরঞ্জন গোলদার, মিজানুর রহমান বাবু, অ্যাড. নিত্যানন্দ ঢালী, বীর মুক্তিযোদ্ধা নিতাই পাল, সমীরণ গোলদার, কিংশুক রায়, নীরজ রায়, এস এম চন্দন, জাহানারা আক্তারী, অ্যাড. সন্দীপ রায়, গাজী আফজাল, অ্যাড. প্রীতিষ ম-ল, আব্দুল হালিম, দুলাল সরকার, সাইদুর রহমান বাবু, আবুল হাসেম, যুব নেতা আফজাল হোসেন রাজু, সৈয়দ রিয়াসাত আলী রিয়াজ, শেখ রবিউল ইসলাম রবি, রামপ্রসাদ রায়, মিঠুন ম-ল, ছাত্র নেতা হুজাইফা আল আমিন, প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, একদিকে করোনায় সারা দেশে লক্ষ লক্ষ মানুষ কর্মহীন বেকার হয়ে পড়েছে অপরদিকে ঘুষ-দুর্নীতি-লুটপাট বেড়েছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও এলপি গ্যাসের মূল্য নিয়স্ত্রণহীন হয়ে পড়েছে। জনজীবন মারাত্মক সংকটের মধ্যে। অন্যদিকে লুটেরা ধনিকশ্রেণি লুটপাট করে বিদেশে অর্থ পাচার করছে। নির্বাচনের নামে ভোট ডাকাতি সামাজিকীকরণ করা হচ্ছে। ঘুষ-দুর্নীতি জাতীয় নীতিতে পরিণত করা হয়েছে। উন্নয়নের নামে সীমাহীন দুর্নীতি লাগাম ছাড়া। গণতন্ত্র নির্বাসনে পাঠিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সাথে প্রতারণা করা হচ্ছে। এহেন পরিস্থিতি হতে মুক্তি পেতে দেশপ্রেমিক জনগণের ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই।