খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অননুমোদিতআবাসন প্রকল্প উচ্ছেদ

সর্বশেষ আপডেটঃ
28
0

উষার আলো রিপোর্ট : প্রথম বারের মতো দুইটি অননুমোদিত বেসরকারী আবাসন প্রকল্প মহানগর আবাসন প্রকল্প লি: এবং এস এম সিটি” এর বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। রিয়েল এষ্টেট উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা আইন অনুসারে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের আওতাধীন এলাকায় বেসরকারী উদ্যোগে কোন আবাসন প্রকল্প করতে হলে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নিবন্ধন, অনুমোদনের প্রয়োজন হয়। কিন্তু যত্রতত্র আবাসিক এলাকা গড়ে ওঠার কারণে শহরের আশেপাশের এলাকাসমূহ অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠছে। পরিকল্পিত খুলনার উন্নয়নের জন্য কেডিএ’র পরিকল্পনা শাখা অননুমোদিত বেসরকারী আবাসিক এলাকাসমূহকে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় খুলনার নবনির্মিত জেলখানা সংলগ্ন সিটি বাইপাসের পাশে অননুমোদিতভাবে গড়ে ওঠা এ.আর.প্রোপার্টিজ, তানিশা আবাসিক প্রকল্প, খুলনা মডেল টাউন এবং বিশ^াস প্রোপার্টিজের বিরূদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
কেডিএ’র পরিকল্পনা শাখা হতে উক্ত আবাসিক প্রকল্পসমূহকে গত বছরের ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে সকল প্রকার প্রচার প্রচারণা মূলক কার্যক্রম বন্ধ করার পাশাপাশি সাইন বোর্ড, অফিস অপসারণসহ জমি ক্রয় বিক্রয় কার্যক্রম হতে বিরত থাকার জন্য নির্দেশনা প্রদান করে পত্র প্রেরণ করা হয়। কিন্তু প্রতিষ্ঠানসমূহপত্রের নির্দেশনা মোতাবেক কোন কার্যক্রমই গ্রহণ করেনি বিধায় খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) উক্ত অননুমোদিত বেসরকারী আবাসন প্রকল্প সমূহ এর বিরূদ্ধে উচ্ছেদঅভিযান পরিচালনা করে। অভিযানের সময় প্রকল্প সমূহের রাস্তাঘাট, সাইনবোর্ড অপসারন এবং বিদ্যূৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নকরন এর কাজ করা হয়। খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান, ব্রিগেঃ জেনাঃ মোঃ মাহ্বুবুল ইসলামএর উপস্থিতিতে এবং পরিকল্পনা শাখার তত্ত্বাবধানে উক্ত উচ্ছেদ অভিযানে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী জনাব কাজী মোঃ সাবিরুল আলম, পরিচালক (এষ্টেট) মোঃ ছাদেকুর রহমান উপসচিব, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী জনাব শামীম জেহাদ, এবং পরিকল্পনা শাখার সকল কর্মকর্তা / কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। উচ্ছেদ অভিযানের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ প্রশাসনের সদস্যগণ সহযোগিতা করেন। প্রকল্প উচ্ছেদ কার্যক্রমে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জনাব দীপংকর দাশ। সেখানে বর্তমান পরিকল্পনা কর্মকর্তা জনাব মোঃ তানভীর আহমেদ, সহকারী টাউন প্ল্যানার জনাব আবু সাঈদ এবং জনাব রাকিবুল হাসান বিশেষ ভূমিকা পালন করেন। ভবিষ্যতে আইন অমান্যকারীদের বিরূদ্ধে আরো কঠোর হওয়ার বিষয়ে কেডিএ বদ্ধ পরিকর।

(ঊষার আলো-এমএনএস)

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ