শ্রম আইন অনুযায়ী মিল মালিকদের শ্রমিকের পাওনা পরিশোধ করতে হবে : শ্রম প্রতিমন্ত্রী

সর্বশেষ আপডেটঃ

ফুলবাড়ীগেট প্রতিনিধি : শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান এমপির সাথে বৈঠক করেছে বেসরকারী পাট, সুতা বস্ত্রকল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) রাত ৮-৯টা পর্যন্ত ঘন্টাব্যাপী রেলিগেট বিজিএ ভবনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে শ্রমিক নেতারা খুলনার শিরোমনি শিল্প এলাকার মহসেন, জুট স্পিনার্স, আটরা শিল্প এলাকার আফিল, মিরেরডাঙ্গা শিল্প এলাকার সোনালী, এ্যাজাক্স জুট মিলের শ্রমিকদের চুড়ান্ত পাওনা পরিশোধ, ২০০৬ সালের শ্রম আইন অনুযায়ী কলকারখান চালু, আফিল ও জুট স্পিনার্সের মালিক পক্ষ সিবিএ নেতাদের মাধ্যমে শ্রমিকদের ফাইনাল বিল শ্রম আইন মোতাবেক পরিশোধ না করে জোরপুর্বক স্টাম্পে সাক্ষর নিয়ে নামমাত্র টাকা পরিশোধ করা হয়েছে বলে শ্রম প্রতিমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী শ্রমিক নেতাদের কথা ধৈর্য্য সহকারে শোনেন, তিনি তাৎক্ষণিকভাবে কয়েকজন বেসরকারী জুট মিলের মালিকদের ফোন দিয়ে অতিদ্রত শ্রমিকদের পাওনা শ্রম আইন মোতাবেক পরিশোধ করতে নির্দেশ দেন। একজন শ্রমিকের পাওনা টাকা বকেয়া থাকলেও সে মালিককে আইনের কাঠগড়ায় দাড়াতে হবে বলেও তিনি জানান।

এ সময় খুলনা বিভাগীয় শ্রম পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, শ্রম কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রীর এপিএস শাহাবুদ্দিন আহম্মেদ উপস্থিত ছিলেন। শ্রমিক নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেসরকারী পাট, সুতা, বস্ত্রকল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি শেখ আমজাদ হোসেন, ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও মহসেন জুট মিল ওয়াকার্স ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম রসুল খান, মহসেন জুট মিলের শ্রমিক নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিল কাজী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্বারী আসহাফ উদ্দীন, ফেডারেশনের প্রচার সম্পাদক সাইফুল্লাহ তারেক, আমির মুন্সি, সোনালী জুট মিল শ্রমিক নেতা সেকেন্দার আলী, লিয়াকত মুন্সি মোঃ বাবুল হোসেন, জুট স্পিনার্স মোঃ কেসমত আলী, এ্যজাক্স জুট মিলের শ্রমিক নেতা আঃ ওহাব, আফিল জুট মিলের শ্রমিক নেতা মোঃ নিজামউদ্দিন, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, মোঃ কাশেম প্রমুখ।