অবশেষে পরীমনির জামিন মঞ্জুর

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : রাজধানীর বনানী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় চিত্রনায়িকা পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে শুনানি শেষে তাঁকে জামিন দেওয়া হয়।

গত ২২ আগস্ট আদালতে পরীমনির এই জামিন আবেদন করেন আইনজীবী মো. মজিবুর রহমান। এরপর আদালত জামিনের বিষয়ে শুনানির জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন। তবে, শুনানির দিন ধার্য করে দেওয়া আদেশ চ্যালেঞ্জ করে গত ২৫ আগস্ট হাইকোর্টে আবেদন করা হয়।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পরীমনির জামিন আবেদনের ওপর অবিলম্বে অথবা আদেশের কপি পাওয়ার ২ দিনের মধ্যে শুনানির নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের প্রতি রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একই সাথে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর জামিন আবেদনের শুনানির দিন ধার্য করে গত ২২ আগস্ট দেওয়া আদেশ কেন বাতিল করা হবে না, তা-ও জানাতে বলা হয়েছে। ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতকে ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ওই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। ওই দিনই রুলের ওপর শুনানির দিন ধার্য রয়েছে।

গত ৪ আগস্ট অভিযান চালিয়ে পরীমনিকে তাঁর বনানীর বাসা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। ওই সময় মাদক এলএসডি, মদ ও আইস উদ্ধার করা হয় বলে দাবি করে র‍্যাব। গত ৫ আগস্ট র‍্যাব বাদী হয়ে রাজধানীর বনানী থানায় পরীমনি ও তাঁর সহযোগী বিপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে। একই দিন পরীমনি ও তাঁর সহযোগীর ৪ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এরপর সিআইডির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ মামলায় ১০ আগস্ট পরীমনি ও তাঁর সহযোগী দিপুর দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

গত ১৩ আগস্ট ২য় দফার রিমান্ড শেষে পরীমনি ও তাঁর সহযোগী দিপুকে কারাগারে পাঠানো হয়। গত ১৯ আগস্ট আদালত পরীমনির জামিন আবেদন খারিজ করে ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ৩য় দফার রিমান্ড শেষে গত ২১ আগস্ট তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। বর্তমানে পরীমনি কাশিমপুর কারাগারে আটক রয়েছেন।

(ঊষার আলো-আরএম)